সত্য এসেছে এবং মিথ্যা বিলুপ্ত হয়েছে। নিশ্চয় মিথ্যা বিলুপ্ত হওয়ারই ছিল।

কুতুবে সিত্তাহ’র ছুলাছিয়াত সমগ্র (বই)

 

বইয়ের নামঃ কুতুবে  সিত্তাহ’র  ছুলাছিয়াত সমগ্র সংকলকঃ আফফান বিন তৈয়ব প্রকাশনায়ঃ সত্যান্বেষী পাবলিকেশন্স  ফাইল টাইপঃ  পি.ডি.এফ    

বাংলা ভাষায় ছুলাছিয়াত সম্পর্কে তেমন পরিচিতি নেই। ছুলাছিয়াত হল সেই হাদীছ যার রাবী সংখ্যা মাত্র তিনজন। অর্থাৎ হাদীছ সংকলক থেকে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পর্যন্ত পৌঁছতে তিনজন রাবীর মধ্যস্ততা।

 

হাদীছ বিষয়ে অত্যধিক আগ্রহ


ইমাম বুখারীর কিতাবসমূহের বিভ্রান্তি নিরসন

বিসমিল্লাহির রহমানির রহীম

বর্তমানে কিছু কিছু ভাই ইসলামের কিছু মাস’আলা নিয়ে অনেক কিছু লেখালেখি করছেন। কোন কিছু বলার বা লেখার অধিকার সবারই আছে। কিন্তু ইসলামিক কিছু লিখতে হলে অনেক যাচাই করে লেখা উচিত। কেননা আপনি যদি কোন ভুল করেন সেই দায়ভার শুধু


আসরের পর (সূর্য উঁচুতে থাকা অবস্থায়) নফল সলাত আদায়ের কোন প্রমাণ আছে কি?

 

রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেনঃ ‘নিশ্চয়ই তোমাদের পশ্চাতে রয়েছে একটি ধৈর্যের যুগ। সে সময় যে ব্যক্তি সুন্নাতকে শক্ত করে আকড়ে ধরে থাকবে, সে ৫০ জন শহীদের সমান নেকী পাবে’। উমার (রাঃ) বললেন, হে আল্লাহর রাসূল! আমাদের মধ্য থেকে ৫০ জন নাকি তাদের? তিনি বললেন, ‘তোমাদের


শাইখ আলবানী কি শবেবরাতের হাদীসকে সাহীহ বলেন নি?

(১৪০০৮৪) আমরা কেন উল্লেখ করছি না যে শাইখ আলবানী (রহঃ) মধ্য শাবানের রাতের ফযিলতের হাদীছকে ছহীহ বলেছেন?

প্রশ্নঃ 

আবু মুসা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, “আল্লাহ মধ্য শাবানের রাতে আত্নপ্রকাশ করেন এবং মুশরিক ও হিংসুক ব্যতীত তাঁর সৃষ্টির সকলকে ক্ষমা করেন।”


হাফিয যুবাইর আলী যাঈ(র) কে নিয়ে মাওলানা লুৎফুর রহমান ফরায়েজীর মিথ্যাচার

বিসমিল্লাহির রহমানির রহীম

মাওলানা লুৎফুর রহমান ফরায়েজী আমাদের দেশের একজন সুপরিচিত হানাফী আ’লিম। তিনি হানাফী মুহাদ্দিছ হাবীবুর রহমান আযমী(র) এর তাহক্বীক্বের পক্ষপাতিত্ব করতে গিয়ে হাফিয যুবাইর আলী যাঈ(র) কে নিয়ে অনেক বাজে মন্তব্য করেছেন ও


তাশাহহুদে তর্জনী (শাহাদাত অঙ্গুলি) উঠানো

তাশাহহুদে তর্জনী (শাহাদাত আঙ্গুল) দিয়ে ইশারা করা যে সুন্নাত, এ বিষয়ে সকল আলেম একমত। সম্ভবত এর কারণ হল, এ বিষয়ের উপর যত হাদীস বর্ণিত হয়েছে সেগুলো থেকে অন্তত এটা প্রমাণিত হয় যে, আল্লাহর রাসূল (সাঃ) যখন তাশাহহুদের জন্য বসতেন, তখন তাঁর তর্জনী উঠাতেন


মি’রাজের রাত্রিতে রাসূল (সা) এর ‘আত তাহিয়াতু’ লাভ করার মিথ্যা, ভিত্তিহিন ও বানোয়াট একটি কাহিনী

সর্বপ্রথম মি’রাজ সম্পর্কে আমরা আমাদের অবস্থান পরিস্কার করছি। আমরা বিশ্বাস করি, মি’রাজ রাসূল (সা) এর অন্যতম শ্রেষ্ঠ মু’জেজা। রাসূল (সা) কে মহান আল্লাহ তায়ালা সশরীরে ঊর্ধ্বাকাশে নিয়ে গিয়েছেন। আমরা মি’রাজ সম্পর্কে কুরআন ও সহীহ হাদীস দ্বারা


মিরাজের রাত্রিতে মুহাম্মাদ (সা) জুতা পায়ে দিয়ে আরশ বা তাঁর ঊর্ধ্বে গিয়েছিলেন কি?

সর্বপ্রথম মি’রাজ সম্পর্কে আমরা আমাদের অবস্থান পরিস্কার করছি। আমরা বিশ্বাস করি, মি’রাজ রাসুল (সাঃ)-এর অন্যতম শ্রেষ্ঠ মু’জেজা। রাসুল (সাঃ)-কে মহান আল্লাহ তায়ালা সশরীরে ঊর্ধ্বাকাশে নিয়ে গিয়েছেন। আমরা মি’রাজ সম্পর্কে কুরআন ও সহীহ হাদীস দ্বারা


মিরাজের রজনী, ২৭ এ রজব এবং বিশেষ ইবাদাতসমূহ

ইসরা ও মি’রাজ রাসুল (সাঃ)-এর মাক্কী জিবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। নবুয়ত ও রিসালাতের প্রমানে ইসরা ও মি’রাজ অন্যতম মু’জিজা। মি’রাজের রজনীতেই নির্দেশ এসেছে দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত সলাতের, যা নিয়মিতভাবে পালন না করলে মুসলিম হিসাবে টিকে থাকা সম্ভব


মাগরিবের ছলাতের ন্যায় বিতর পড়া ও না পড়ার দলীল সমূহের পর্যালোচনা

বিসমিল্লাহির রহমানির রহীম

মাগরিবের ছলাতের ন্যায় বিতর না পড়াঃ এই মতটি ছহীহ…

হাদীছ নং ১:

أَخْبَرَنَا أَبُو عَبْدِ اللهِ الْحَافِظُ، أنبأ أَبُو نَصْرٍ أَحْمَدُ بْنُ سَهْلٍ الْفَقِيهُ بِبُخَارَى،


Page 1 of 1412345...10...Last »
Powered by WordPress | Designed by Shottanneshi Research Team